শুরুতেই ক্যান্সার চিহ্নিত করতে নতুন ডিএনএ পরীক্ষা

শুরুতেই ক্যান্সার চিহ্নিত করতে নতুন ডিএনএ পরীক্ষা - ছবি : সংগৃহীত।


শরীরে ক্যান্সার বাসা বাঁধার সাথে সাথেই যদি রোগ ধরা যায়! সে ক্ষেত্রে অবশ্যই এই ভয়াবহ অসুখকে কাবু করা সহজ হবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি জীবপ্রযুক্তি সংস্থা দাবি করেছে, তারা ডিএনএ পরীক্ষার সাহায্যে রোগের শুরুতেই ক্যান্সার চিহ্নিত করার পথ খুঁজে পেয়েছে। তারা জানিয়েছে, তাদের আবিষ্কৃত পদ্ধতিতে ১৮ ধরনের ক্যান্সার শুরুতেই চিহ্নিত করা সম্ভব হবে।

গোটা বিশ্বে প্রতি ছয়জনের মধ্যে একজনের মৃত্যু হয় ক্যান্সারে। সংস্থাটির দাবি, ডিএনএ পরীক্ষাটি ভবিষ্যতে ‘গেমচেঞ্জার’-এর মতো কাজ করতে পারে। গবেষকেরা দাবি করছেন, রক্তের প্লাজমায় উপস্থিত প্রোটিনগুলোকে পরীক্ষা করে তারা দেখেছেন, ক্যান্সার রোগীদের নমুনার সাথে কোনো সুস্থ ব্যক্তির নমুনার পার্থক্য রয়েছে। এমনকি আলাদা আলাদা ক্যান্সারের ক্ষেত্রে পৃথক ফল পেয়েছেন তারা। এভাবেই ক্যান্সার চিহ্নিত করা সম্ভব হয়েছে। গবেষণাপত্রটি ‘বিএমজে অঙ্কোলজি’ জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। বিজ্ঞানীদের সন্দেহ, ক্যান্সার প্রোটিন সিগন্যালগুলো লিঙ্গ-বিশেষেও আলাদা বৈশিষ্ট্য বহন করে।

বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, ভবিষ্যতে নিয়মিত স্বাস্থ্য-পরীক্ষা, অর্থাৎ রুটিন চেক আপে এই প্লাজমা পরীক্ষাটি জায়গা করে নিতে পারে। রোগ প্রতিরোধে জরুরি পদক্ষেপ। সে ক্ষেত্রে কারো শরীরে হয়তো কোনো উপসর্গ নেই, কিন্তু ক্যান্সার গোপনেই বাসা বেঁধেছে, এই পরীক্ষায় সেটা ধরা সম্ভব হবে।

বিশেষজ্ঞেরা জানিয়েছেন, গবেষণায় ৪৪০ জনের রক্তের প্লাজমার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। তাদের মধ্যে ১৮ রকমের ক্যান্সার-আক্রান্ত ছিলেন। ৪৪ জন সুস্থ ব্যক্তি ছিলেন। বিজ্ঞানীদের দাবি, এমন কিছু প্রোটিন পাওয়া গেছে, যেগুলো আর্লি-স্টেজ ক্যান্সার চিহ্নিত করতে পারে এবং ক্যান্সারের উৎসও সন্ধান করতে সক্ষম। শুধু তা-ই নয়, বিজ্ঞানীদের দাবি, এই পরীক্ষায় নিখুঁত ফলাফলের হার বেশি। ৯৯ শতাংশ সঠিক। তবে বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, আরো বেশি সংখ্যক নমুনার উপরে পরীক্ষা করা প্রয়োজন।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

Next Post Previous Post