ডিএইচএমএস পরীক্ষার স্পেশাল সাজেশন ২০২৩ : দ্বিতীয় বর্ষ | মেটেরিয়া মেডিকা ও টিস্যু রেমিডিস

সাজেশন ছাত্রদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। একটি ভাল ফলাফল করার জন্য এটি প্রয়োজন। ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ডিপ্লোমা ইন হোমিওপ্যাথিক মেডিসিন এন্ড সার্জারি (ডিএইচএমএস) প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ (চূড়ান্ত) বর্ষের পরীক্ষার জন্য আমরা সুপার সাজেশন প্রস্তুত করেছি।

দ্বিতীয় বর্ষ || মেটেরিয়া মেডিকা ও টিস্যু রেমিডিস

বিষয় কোড : ২০২। সময়-৩ ঘন্টা। পূর্ণমান-৭৫।

[দ্রষ্টব্যঃ সকল প্রশ্নের মান সমান। যে কোন পাঁচটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে।]


১। (ক) হাইপেরিকামের পরিচায়ক লক্ষণগুলি লিখ।

(খ) আঘাতে হাইপেরিকাম ও লিডাম পলের মধ্যে পার্থক্য লিখ। 

(গ) হ্রাস-বৃদ্ধিসহ ইহার অনুপূরক ঔষধসমূহের নাম লিখ ।


২। (ক) উৎসসহ ডায়াস্কোরিয়ার চরিত্রগত লক্ষণাবলি লিখ।

(খ) যৌনরোগে ইহার ব্যবহার লিখ।

(গ) ইহার ক্রিয়াস্থলসহ হ্রাস-বৃদ্ধি লিখ ।


৩। (ক) সাইলেসিয়ার ধাতুগত অবস্থা বর্ণনা কর।

(খ) পুঁজের উপর ইহার কার্যকারিতা বর্ণনা কর।

(গ) হাড়ের উপর ক্যালকেরিয়া কার্বের কার্যকারিতা ব্যাখ্যা কর।


৪। (ক) উৎসসহ হেমামেলিসের পরিচায়ক লক্ষণাবলি লিখ ।

(খ) রক্তস্রাবে হেমামেলিস ও কার্বোভেজের পার্থক্য লিখ

(গ) হ্রাস-বৃদ্ধিসহ ইহার ক্রিয়াস্থল বর্ণনা কর ।


৫। (ক) হিপার সালফ এর ধাতুগত লক্ষণসমূহ লিখ ।

(খ) স্পর্শকাতরতা এর প্রধান নির্দেশক- ব্যাখ্যা কর ।

(গ) শ্বাসতন্ত্রের উপর ইহার কার্যকারিতা লিখ ।


৬। (ক) টিস্যু রেমেডি কি? বায়োকেমিক ঔষধকে টিস্যু রেমেডি বলা হয় কেন ?

(খ) হোমিওপ্যাথিক ও বায়োকেমিক চিকিৎসা পদ্ধতির মধ্যে পার্থক্য লিখ ।

(গ)“ প্রদাহের প্রথম অবস্থায় ফেরাম ফস একটি গুরুত্বপূর্ণ ঔষধ”- ব্যাখ্যা কর।


৭। (ক) নেট্রাম ফসের পরিচায়ক লক্ষণাবলি লিখ।

(খ) ক্রিমি রোগে ও পেট ফাঁপায় ইহার ব্যবহার লিখ।

(গ) “রোগের দ্বিতীয় অবস্থায় কেলি মিউর ব্যবহৃত হয়”-ব্যাখ্যা কর।


৮। (ক) কলোফাইলামের প্রতিনাম ও পুরোনাম কি? প্রসব বেদনায় কলোফাইলামের লক্ষণাবলি বর্ণনা কর।

(খ) স্ত্রী জনন অঙ্গের উপর ইহার কার্যকারিতা বর্ণনা কর।

(গ) ইহার সন্ধিবাতের লক্ষণগুলি লিখ।


৯। (ক) ক্লিমেটিস ইরেক্টার চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য বর্ণনা কর।

(খ) গণোরিয়া রোগে ইহার চিত্র বর্ণনা কর।

(গ) হ্রাস-বৃদ্ধিসহ ইহার অনুপূরক ঔষধসমূহের নাম লিখ ।


১০। (ক) কলসিকামের নির্দেশক লক্ষণগুলি লিখ ।

(খ) বাত ও গেঁটে বাতে কখন কস্টিকাম ব্যবহার হয় ?

গ) ইহার হ্রাস-বৃদ্ধি, ক্রিয়ানাশক ও অনুপূরক ঔষধগুলির নাম লিখ ।


১১। (ক) লিডাম পালের নির্দেশক লক্ষণ ও ক্রিয়াস্থল লিখ। 

(খ) লিডাম পালের আঘাত ও বাতের লক্ষণাবলি লিখ ।

(গ) হ্রাস-বৃদ্ধিসহ ইহার অনুপূরক ও ক্রিয়ানাশক ঔষধগুলির নাম লিখ ।


১২। (ক) ক্যালকেরিয়া কার্বের শারীরিক ও মায়াজমেটিক অবস্থা বর্ণনা কর।

(খ) ইহার মানসিক অবস্থা লিপিবদ্ধ কর।

(গ) হ্রাস-বৃদ্ধিসহ ইহার ক্রিয়ানাশক ঔষধগুলির নাম লিখ।


১৩। (ক) ডাঃ সুসলারের বায়োকেমিক ও সাধারণ বায়োকেমিস্ট্রির মধ্যে পার্থক্য লিখ।

(খ) বয়োকেমিক চিকিৎসা মতে “পীড়া ও স্বাস্থ্য” বলতে কি বুঝ ?

(গ) মানবদেহে বায়োকেমিক লবণের প্রয়োজনীয়তা লিখ।


১৪। (ক) ম্যাগনেসিয়া ফসের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য লিখ।

(খ) “ইহার সকল লক্ষণ তাপে ও চাপে উপশম”-ব্যাখ্যা কর। 

(গ) নেট্রাম মিউরের মনের প্রকৃতি বর্ণনা কর ।


১৫। (ক) উৎসসহ ডায়াস্কোরিয়ার চরিত্রগত লক্ষণাবলি লিখ।

(খ) যৌন রোগে এসিড ফসের ব্যবহার লিখ।

(গ) হ্রাস-বৃদ্ধিসহ ডায়াস্কোরিয়ার অনুপূরক ঔষধগুলির নাম লিখ ।


১৬। (ক) ধাতুগত লক্ষণ বলতে কি বুঝ? ক্যালকেরিয়া কার্বকে কেন ধাতুগত ঔষধ বলা হয় ?

(খ) ইহার শারীরিক ও ঘর্মের অবস্থা বর্ণনা কর।

(গ) শিশুরোগে ক্যালকেরিয়া কার্বের ব্যবহার লিখ।


১৭। (ক) সাইলিসিয়ার ধাতুগত অবস্থা বর্ণনা কর।

(খ) পুঁজের উপর ইহার কার্যকারিতা বর্ণনা কর ।

(গ) ক্যালকেরিয়া কার্ব হাড়ের কার্যকারী- ব্যাখ্যা কর।


১৮। (ক) হেমামেলিসের ক্রিয়াস্থল লিখ । ইহার চারিত্রিক লক্ষণাবলি বর্ণনা কর।

(খ) রক্তক্ষরণে হেমামেলিস ও মিলিফোলিয়ামের ব্যবহার লিখ।

(গ) কলোফাইলামের উৎসহ নির্দেশক লক্ষণাবলি লিখ।


১৯। (ক) হিপার সালফ এর ধাতুগত লক্ষণসমূহ লিখ ।

(খ) স্পর্শকাতরতা এর প্রধান নির্দেশক- ব্যাখ্যা কর।

(গ) শ্বাসতন্ত্রের উপর ইহার কার্যকারিতা লিখ ।


২০। (ক) নেট্রাম মিউরের পরিচায়ক লক্ষণগুলি লিখ ।

(খ) শিরঃপীড়ায় ইহার ব্যবহার লিখ।

(গ) শ্বাসতন্ত্রের উপর নেট্রাম সালফের লক্ষণাবলি আলোচনা কর।


২১। (ক) বায়োকেমিক চিকিৎসার মূলনীতিগুলি লিখ।

(খ) পাঁচটি ফসের রাসায়নিক ফরমূলাসহ পূর্ণনাম লিখ ।

(গ) ম্যাগনেসিয়া ফস ব্যথার মহৌষধ- ব্যাখ্যা কর।


২২। সংক্ষেপে লিখ : 

(ক) ন্যাট্রাম মিউরের মাথাব্যথা, 

(খ) ক্ষতে সাইলেসিয়া, 

(গ) হুপিং কাশিতে ড্রসেরা,

(ঘ) পেট বেদনায় কলোসিন্থ, 

(ঙ) গেঁটে বাতে কলচিকাম, 

(চ) বাত বেদনায় কলোফাইলাম, 

(ছ) হাঁপানিতে নেট্রাম সালফ,  

(জ) নেট্রাম ফস অম্লরোগের মহৌষধ, 

(ঝ) মানসিক দুর্বলতায় এনাকার্ডিয়াম,

(ঞ) পেট ফাঁপায় কার্বোভেজ,

(ট) প্রদাহে ফেরাম ফস,

(ঠ) মূত্র লক্ষণে ক্যান্থারিস।

বিঃদ্রঃ - ২০২৩ সালের ডিএইচএমএস পরীক্ষার সংশোধিত সময়সূচি প্রকাশিত হয়েছে।  ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ (চূড়ান্ত) বর্ষ এবং ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষের ডিপ্লোমা ইন হোমিওপ্যাথিক মেডিসিন এন্ড সার্জারি (ডিএইচএমএস) নিয়মিত পরীক্ষা আগামি ১৭-১১-২০২৩ ইং তারিখ হতে বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে। 

** শুক্রবার পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে : সকাল ৯.০০টা হতে বেলা ১২.০০টা পর্যন্ত এবং বেলা ২.০০ টা হতে বিকাল ৫.০০ টা পর্যন্ত।

** শনিবার পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে : সকাল ১০.০০টা হতে বেলা ১.০০টা পর্যন্ত এবং বেলা ২.০০ টা হতে বিকাল ৫.০০ টা পর্যন্ত।

** পরীক্ষা শুরু হওয়ার ৩০ মিনিট পূর্বে পরীক্ষার কেন্দ্রে অবশ্যই পরীক্ষার্থীদের উপস্থিত থাকতে হইবে।

Next Post Previous Post